Nationalnews.Video  

 

 
   

Facebook LikeBox  

   
Today163
Yesterday346
Total278922

Monday, 31 August 2015 10:45

Who Is Online

Guests : 3 guests online Members : No members online
   
   

Login Form  

   

প্রচ্ছদ

ভূমিকম্পের ক্ষতি: নেপাল ছেড়ে চীনের পথে এভারেস্ট আরোহীরা

Details

আন্তর্জাতিক সংবাদ,ন্যাশনালনিউজ: কারস্টেন পেডেরসেনের এভারেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু সেই শৈশবেই। স্বপ্ন পূরণের পথেই তিনি আছেন। তবে নেপালের সাম্প্রতিক ভূমিকম্পের পর তাঁর পরিকল্পনায় একটি বড় পরিবর্তন এসেছে।

Risultati immagini per নেপাল ছেড়ে চীনের পথে এভারেস্ট আরোহীরাতিনি এখন আর নেপাল থেকে এভারেস্টের পথে যেতে চান না। পথ পাল্টে চীনের দিক থেকেই পৃথিবীর সর্বোচ্চ এই গিরিশৃঙ্গে ওঠার চেষ্টা করবেন।পেডেরসনের মতো অনেক পর্বতারোহী এখন এভারেস্টে উঠতে চীনের পথ বেছে নিচ্ছেন। এর কারণ, নেপালে এভারেস্ট আরোহণের ব্যবস্থাপনা দিন দিন দুর্বল হয়ে পড়ছে। এবারের ভূমিকম্পে তুষার ঝড়ে ১৮ জনের মৃত্যুর পর অব্যবস্থাপনার চিত্রটি আরও প্রকট হয়ে ওঠে। এর তুলনায় উত্তরে চীনের তিব্বত হয়ে এভারেস্টে পর্বত আরোহণের ব্যবস্থাপনা বেশ ভালো।

এভারেস্ট আরোহণে নেপাল সরকারের অব্যবস্থাপনার শিকার পেডেরসন নিজে। ভূমিকম্পের পর তাঁর এভারেস্ট আরোহণের অনুমপতিপত্র এখনো পর্যন্ত নেপাল সরকার নবায়ন করেনি। করবে কি না, তাও ঠিক নেই। তাঁর মতো অনেকেই সরকারের এই আচরণের জন্য নেপাল ছেড়ে চীন দিয়ে এভারেস্ট আরোহণের চেষ্টা করছেন।
পেডারসেন বলছিলেন, প্রতিটি প্রতিক্রিয়ার একটি ফল থাকবে। আমার প্রতিক্রিয়া হলো, ‘নেপাল সরকার যদি আমার অনুমতিপত্র নবায়ন না করে তবে আমি চীনের তিব্বত হয়ে এভারেস্টে ওঠার চেষ্টা করব। তাদের ব্যবস্থাপনা এতটা জটিল না।’
এভারেস্টে ওঠার জন্য পেডারসেন তিনবার চেষ্টা করে এ পর্যন্ত ১০ হাজার মার্কিন ডলার খরচ করেছেন। তবে পেডারসেনের মতো পর্বতারোহীরা যেভাবে চীনের পথ ধরছেন, তাতে নেপালের ট্রেকিং এবং পর্বতারোহণ বাণিজ্যের ওপর ব্যাপক প্রভাব পড়তে পারে। প্রতিবছর এভারেস্ট আরোহণে পারমিটে কয়েক কোটি ডলার আয় করে নেপাল। তবে পুরো শিল্পে খাটে প্রায় ৩৫ কোটি ডলার। আর এর মধ্যে এভারেস্টের ক্ষেত্রেই বেশি আয় হয়। নেপালের পর্যটন বিভাগের সাবেক পরিচালক প্রচন্ড মান শ্রেষ্ঠা বলেন, ‘নেপালের পুরো পর্যটন খাতের ওপর এই একটি পর্বতের প্রভাব ব্যাপক।’

Read more: ভূমিকম্পের ক্ষতি: নেপাল ছেড়ে চীনের পথে এভারেস্ট আরোহীরা

অভিবাসীদের নাগরিকত্ব দিতে আগ্রহী হিলারি

Details

আন্তর্জাতিক সংবাদ,ন্যাশনালনিউজ: যুক্তরাষ্ট্রের আগামী বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনয়নপ্রত্যাশী হিলারি ক্লিনটন অভিযোগ করেছেন, তাঁর বিরোধীপক্ষ রিপাবলিকানরা যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসীদের ‘দ্বিতীয় শ্রেণির’ নাগরিকের মর্যাদা দিতে চায়।

Risultati immagini per হিলারি

তবে তিনি প্রেসিডেন্ট হলে, দেশটির ১ কোটি ১০ লাখ অবৈধ অভিবাসীর বৈধতা দিতে যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন। খবর এএফপি ও টাইম ম্যাগাজিনের। 

যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও ফার্স্ট লেডি হিলারি ক্লিনটন দেশটির অভিবাসন সংস্কার নিয়ে সব সময় সরব। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্রে বেড়ে ওঠা তরুণদের নাগরিকত্বের বিষয়ে তিনি ইতিবাচক অবস্থান নিয়ে আসছেন। হিলারি বলেছেন, ‘অভিবাসীদের পূর্ণ ও সমান নাগরিকত্বের সুযোগ দেওয়ার জন্য আমরা আর অপেক্ষা করতে পারি না।’

গত মঙ্গলবার নেভাদা অঙ্গরাজ্যের লাস ভেগাসে একটি হাইস্কুলের অনুষ্ঠানে ভাষণে এসব কথা বলেন হিলারি। তিনি বলেন, ‘রিপাবলিকান পার্টির প্রত্যেক মানুষের সঙ্গে এ বিষয়ে আমার ভিন্নমত আছে। আমি ভুল করছি না। আজ পর্যন্ত রিপাবলিকান পার্টির কোনো সম্ভাব্য প্রার্থী নাগরিকত্বের বিষয়টি নিয়ে কোনো উচ্চবাচ্য করেননি।’ হিলারি বলেন, ‘রিপাবলিকান পার্টির লোকজন যখন অভিবাসীদের আইনি স্বীকৃতির কথা বলেন, তাঁরা তাঁদের দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিকত্বের পক্ষে বলেন।’

Read more: অভিবাসীদের নাগরিকত্ব দিতে আগ্রহী হিলারি

৩ বছর পর ঢাকা হবে ক্লিন ও গ্রীণ শহর : ২ মেয়র

Details

(ঢাকা)-ন্যাশনালনিউজ: রাজধানীবাসীর সব সমস্যা সমাধান করার জন্য একটি সমন্বিত কর্তৃপক্ষ গঠন করে শিগগিরই প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রস্তাব নিয়ে সাক্ষাৎ করতে যাবেন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত ২ মেয়র আনিসুল হক ও মোহাম্মদ সাঈদ খোকন।

৩ বছর পর ঢাকা হবে ক্লিন ও গ্রীণ শহর : ২ মেয়র

তারা বলেন, আগামী ৩ বছর পর ঢাকা হবে ক্লিন ও গ্রীণ শহর। আজ সোমাবার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইলস্থ আইডিইবি ভবনে ফেডারেশন অফ বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) আয়োজিত এক সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তারা এ কথা জানান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন এফবিসিসিআই সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ। এতে বক্তব্য রাখেন, এফবিসিসিআই সহসভাপতি হেলাল উদ্দিন ও সেলিমা আহমদ।

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক বলেন,আগামী ২ বছরের মধ্যে ঢাকাকে গ্রীণ সিটিতে রূপান্তর করা হবে। এ শহরকে সুন্দর ও বাসযোগ্য নগরী গড়ার জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। দক্ষিণের মেয়র সাঈদ খোকনকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, দক্ষিণের কাছে উত্তর সিটি কর্পোরেশন ২০০ কোটি টাকা পাবে। তবে তা এখনই দিতে হবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা ২ ভাই মিলে ঢাকাকে একটি বাসযোগ্য শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। আমরা আপনাদের হতাশ করবো না।

নগরবাসীর নিরাপত্তার জন্য সমগ্র ঢাকায় সিসি ক্যমেরার ব্যবস্থা করা এবং বর্জ্য সমস্যার সমাধান করার জন্য পদক্ষেপ নিবেন বলে প্রতিশ্র“তি দিয়ে আনিসুল হক বলেন, ২ বছর পর বর্জ্য নিয়ে আপনারা কোনো সমস্যা দেখবেন না। ৩ বছর পর ঢাকা হবে ক্লিন ও গ্রীণ শহর। তিনি আরও বলেন, আমরা ফুটপাত দিয়ে হাঁটতে চাই এটা যেমন সত্য, তেমনি সত্য, যে মানুষটি ফুটপাতে কাজ করে এটি তার জীবনের রোজগার। তাই আগে তার জন্য একটি ব্যবস্থা করতে হবে। আমরা বিশ্বাস করি এটাও সম্ভব হবে। তবে এ জন্য সকল মহলের সহযোগিতা দরকার হবে।

Read more: ৩ বছর পর ঢাকা হবে ক্লিন ও গ্রীণ শহর : ২ মেয়র

বস্তিবাসীদের দৈনিক ২৫০ টাকা কিস্তিতে ফ্ল্যাট দেবে সরকার

Details

(ঢাকা)-ন্যাশনালনিউজ: বস্তিবাসীদের বহুতল ভবনে ফ্ল্যাট দেবে সরকার। দিনে ২৫০ থেকে ২৭৫ টাকা কিস্তিতে ৩৫০ থেকে ৪৫০ বর্গফুটের এসব ফ্ল্যাট পেতে পারেন বস্তিবাসীরা।

Risultati immagini per ফ্ল্যাটএজন্য গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় ২১৬ কোটি ১৫ লাখ ৩২ হাজার টাকার দুটি প্রকল্প হাতে নিয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী মোশাররফ হোসেন। বুধবার মিরপুরে জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কয়েকটি প্রকল্পের উদ্বোধন উপলক্ষে কালসী মোড়ে এক অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, পূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীন জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ বস্তিবাসী ও নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য এসব ফ্ল্যাট নির্মাণ করবে। “বস্তিবাসী ও নিম্ন আয়ের মানুষের জন্য নির্মাণাধীন ফ্ল্যাটে দুটি বেডরুম, একটি ড্রয়িংরুম, রান্নাঘর ও একটি টয়লেট থাকবে। কিস্তির টাকা ব্যাংকে পরিশোধ করে তারা ফ্ল্যাটের মালিক হতে পারবেন।” গৃহায়ন ও পূর্তমন্ত্রী বলেন, “যেসব বস্তিবাসীকে ফ্ল্যাট বরাদ্দ দেওয়া হবে সেখানে আর বস্তি করতে দেওয়া হবে না। এভাবে ঢাকা শহর থেকে বস্তি নির্মূল করা হবে।”

২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি মধ্য আয়ের দেশে পরিণত হবে দাবি করে মোশাররফ বলেন, “বস্তিবাসীরা অত্যন্ত মানবেতর জীবনযাপন করে। তাদেরকে পিছিয়ে রেখে দেশ এগিয়ে যেতে পারে না।” রাতে পূর্ত মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মিরপুর ১১ নম্বর সেকশনে বাউনিয়া বাঁধের পাশে দুই হাজার ৬০০ বাস্তুহারার জন্য ছয় তলার নয়টি ভবন নির্মাণ করা হবে। এসব ভবনে ৪৩২টি ফ্ল্যাটের আয়তন হবে ৩৫০ বর্গফুট। এই প্রকল্পে নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৬ কোটি ৩০ লাখ ৬০ হাজার টাকা।

মন্ত্রণালয় বলছে, মিরপুর ১১ নম্বর সেকশনেই আরেকটি প্রকল্পে ছয় তলার ২৭টি ভবন নির্মাণ করা হবে। সেখানে ৪৬৫ বর্গফুট আয়তনের ৬৪৮টি ফ্ল্যাট হবে। এছাড়া স্বল্প ও মধ্য আয়ের লোকদের জন্য মিরপুর ৯ নম্বর সেকশনে ১২ দশমিক ২১ একর জমির ওপর ১০টি ১৪তলা আবাসিক ভবনে এক হাজার ৪০টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হচ্ছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৫৪৫ বর্গফুটের ৫২০টি, ১ হাজার ৩৪৫ বর্গফুটের ৪১৬টি এবং ৭৮৪ বর্গফুটের ১০৪টি ফ্ল্যাট নির্মাণ করা হবে; এজন্য প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৬৬ কোটি ৭০ লাখ ৫৩ হাজার টাকা।

এর আগে পূর্তমন্ত্রী মিরপুর ৯ নম্বর সেকশনে জাতীয় গৃহয়ন কর্তপক্ষের ১২ দশমিক ২১ একর জায়গায় ১ হাজার ৪০টি আবাসিক ফ্ল্যাট নির্মাণ প্রকল্প এবং ১৬৮ একর জমির সীমানা প্রচীর নির্মাণ কাজেরও উদ্বোধন করেন। জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সাংসদ সদস্য ইলিয়াস আলী মোল্লাও বক্তব্য দেন। 

ইউরোপ প্রবাসীদের জন্য ডেনমার্কে সিজনাল কাজের অফার

Details

প্রবাস ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: ইউরোপের বিভিন্ন দেশে বসবাস করছেন এবং তাদের মধ্যে অনেকেই রয়েছেন ডকুমেন্টস ধারী, কিন্তু বর্তমান বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দার কারনে বেকার বা বিভিন্ন কাজের সন্ধানে ছুটোছুটি করছে। 

Risultati immagini per ডেনমার্কে কাজ

ইউরোপের সেঞ্জেনভুক্ত দেশ ডেনমার্কে সিজনাল কাজের জন্য বিভিন্ন ধরণের কর্মী নিয়োগ দিচ্ছে, অবশ্যই ইউরোপের সেঞ্জেনভুক্ত যেকোনো দেশের একটির ভ্যালিড কাগজ বা রেসিডেন্স থাকতে হবে, ১৮ বছর বা এর উপরের হতে হবে এবং মিনিমাম বা মোটামুটি ইংরেজিতে পারদর্শী হতে হবে। উল্লেখ্য ইউরোপের সেঞ্জেন ভুক্ত বিভিন্ন দেশের ডকুমেন্টস গুলো যেমনঃ পাসপোর্ট,আইডি কার্ড, ড্রাইভিং লাইসেন্স, রেসিডেন্স ইত্যাদি। 

ডেনমার্কে সিজনাল কাজ সম্পর্কে কিছু ধারণাঃ ডেনমার্কে সাধারণত সিজনাল কাজ শুরু হয় মে মাস থেকে যেমনঃ মে মাস থেকে শুরু করে আগস্ট পর্যন্ত  fragole/ স্ট্রবেরি সংরক্ষণ করার কাজ, তারপর যেমন জুন মাস থেকে আগস্ট পর্যন্ত  piselli/ ডাল সংরক্ষণ করা , আবার রয়েছে মে মাস থেকে নভেম্বর পর্যন্ত  lettuce and onions/ লেটুস এবং পেঁয়াজ এর কাজ, আবার আগস্ট মাস থেকে নভেম্বর পর্যন্ত  apples and pears/ আপেল এবং নাশপাতি সংরক্ষণ মূলক কাজ, এবং সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত রয়েছে খ্রিস্টান দের ক্রিসমাস উপলক্ষে বিভিন্ন কৃত্তিম গাছপালা সাজানোর কাজ সহ আরও অনেক কিছুই। তার মানে আপনি পুরো বছরের জন্য কোন না কোন কাজ এখানে পাচ্ছেন।

বজ্রপাত থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল

Details

(তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক)-ন্যাশনালনিউজ: বজ্রপাতপ্রবণ অঞ্চলেই বাংলাদেশের অবস্থান। ফলে বজ্রপাত বন্ধের বা প্রতিরোধের কোন উপায় নেই। তবে বজ্রপাতে প্রাণহানি ও ক্ষতি নিয়ন্ত্রণ সম্ভব। এ জন্য প্রয়োজন জনসচেতনতা। 

Risultati immagini per বজ্রপাত থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল

বিজ্ঞানীদের বিশ্লেষণে হিমালয়ের পাদদেশ থেকে বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত জলবায়ু পরিবর্তনের কেন্দ্র হিসেবে বিবেচিত বলেই বাংলাদেশকে বজ্রপাতপ্রবণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। চৈত্র-বৈশাখে কালবৈশাখীর মওসুম শুরু হলেই বজ্রপাতের ঘটনা ঘটতে থাকে। গত এক সপ্তাহে ১২ জনেরও বেশি মানুষ বজ্রপাতে নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। প্রতিবছরই এই মওসুমে বজ্রপাতে প্রাণহানি ঘটে। ২০১৪ সালে সারাদেশে প্রায় শতাধিক লোক প্রাণ হারিয়েছে। ২০১৩ সালে একদিনেই ১০ জেলায় ১৮ জন নিহত হন।

বাংলাদেশে বজ্রপাতের সবচেয়ে বড় ট্রাজেডি ঘটে ২০১২ সালে। ওই বছরের ১০ আগস্ট সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের সরস্বতীপুর গ্রামের মসজিদে বজ্রপাতে ইমামসহ ১৩ জন মুসল্লির মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। আর সারা বিশ্বে বজ্রপাতের সবচেয়ে বড় ট্রাজেডি ঘটে ১৭৬৯ সালে। ইতালির একটি চার্চে বজ্রপাতে গান পাউডার বিস্ফোরিত হয়। এতে ৩ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে। বজ্রপাত পুরোপুরি প্রাকৃতিক দুর্যোগ। এ দুর্যোগ প্রতিহতের উপায় নেই। তবে রয়েছে রক্ষা পাওয়ার কৌশল।

মাটি বা ছনের ঘরকে বজ্রপাত থেকে রক্ষা করতে ঘরের উপর দিয়ে একটি রড টেনে তার সঙ্গে দুই দিকে দুটি রড খুটি হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। এতে বজ্রপাতের বিদ্যুৎ ঘরকে আক্রান্ত না করে রডের ভেতর দিয়ে মাটিতে চলে যাবে। ইটের তৈরি অট্টালিকাকেও নিরাপদ করা যায়। তবে এখানে কিছুটা ভিন্ন প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হয়। এতে ভবন ও ভেতরে থাকা ইলেট্রনিক পণ্য নিরাপদ করা সম্ভব। এখানে ভবনের উপরে লৌহদণ্ড বসিয়ে দিয়ে পাশ দিয়ে মাটির সঙ্গে সংযুক্ত করতে হবে। প্রযুক্তিগত ভুলের কারণে পুরোপুরি নিরাপদ হচ্ছে না ভবনগুলো এমন মত দিয়ে বিশেজ্ঞরা জানান, অনেক ভবনেই উপরে লৌহদণ্ড বসানো হচ্ছে কিন্তু এর সঙ্গে একটি তার দিয়ে মাটির সঙ্গে সংযুক্ত করা হয়, যা উচিত নয়।

Read more: বজ্রপাত থেকে রক্ষা পাওয়ার কৌশল

রোববার থেকে অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করছে সৌদি আরব

Details

প্রবাস ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ:  অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে নতুন করে অভিযান শুরু করছে সৌদি আরব। যেসব শ্রমিক ও বসবাসকারী সেখানে আইন লঙ্ঘন করে অবস্থান করছেন তাদের বিরুদ্ধে এ অভিযান শুরু হচ্ছে রোববার থেকে।

এর আগে খবর প্রকাশিত হয়েছিল যে, অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা অর্জনের জন্য এক মাসের সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করা হবে। কিন্তু সেই খবর যথার্থ নয়। সরকার এ সিদ্ধান্ত নেয় নি। এ কথা জানিয়ে দিয়েছে সৌদি আরব কর্তৃপক্ষ। সৌদি গেজেট এ খবর দিয়েছে। পাসপোর্টবিষয়ক মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সুলাইমান বিন আবদুল আজিজ আল ইয়াহিয়া এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য দিয়েছেন সৌদি গেজেটকে।

তিনি বলেছেন, অভিবাসন ও শ্রম নিয়মনীতি বাস্তবায়নের জন্য প্রশাসনিক কমিটি গঠনের কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। অভিযানে যাদেরকে নিয়ম লঙ্ঘন করে সৌদি আরবে অবস্থান করার প্রমাণ পাওয়া যাবে তাদেরকে আটক করে স্ব স্ব দেশে ফেরত পাঠানো হবে। তাই তার দেশের কোন নাগরিক যেন অবৈধ অভিবাসীদের যেন আশ্রয় না দেন এবং তাদের পক্ষ অবলম্বন না করেন- এব্যাপারে সতর্ক করেছেন তিনি। কাউকে আইন লঙ্ঘনের দায়ে অভিযুক্ত পাওয়া গেলে তার শাস্তি লাঘব হবে না।

Read more: রোববার থেকে অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করছে সৌদি আরব

বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ তদন্ত করবে আইসিসি

Details

স্পোর্টস ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজঅবশেষে এবারের বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ বনাম ভারতের ১৯ মার্চে কোয়ার্টার ফাইনালের খেলা বিতর্কিত ম্যাচটি নিয়ে তদন্ত ও বিশ্লেষণ করবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

Risultati immagini per বাংলাদেশ-ভারত ম্যাচ তদন্ত করবে আইসিসি

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি (বিসিবি) নাজমুল হাসান পাপন গণমাধ্যমকে এ কথা জানিয়েছেন। এদিকে আইসিসির প্রেসিডেন্ট পদ থেকে বাংলাদেশের পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের পদত্যাগে পুরো বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক বলে মন্তব্য করেছেন। বিসিবি সভাপতি মনে করেন বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচটি নিয়ে উদ্ভূত অবস্থা বাংলাদেশ-ভারত আসন্ন সিরিজে কোনো প্রভাব ফেলবে না। উল্লেখ্য বিশ্বকাপের আলোচিত এই ম্যাচটি নিয়ে অ্যাম্পায়ারদের ভুমিকার সমালোচনা করে বিবৃতি দিয়েছিলেন আইসিসির সাবেক সভাপতি আনহ মুস্তফা কামাল। শেষ পর্যন্ত তিনি পদত্যাগ করেন। 

নাজমুল হাসান বলেছেন, বাংলাদেশ-ভারত কোয়ার্টার-ফাইনাল ম্যাচটি নিয়ে আইসিসি তদন্ত ও বিশ্লেষণ করবে। বিসিবি আনুষ্ঠানিক আপত্তি জানানোর পর বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ডেভিড রিচার্ডসন এ আশ্বাস দিয়েছেন। ম্যাচটি হয়ে যাওয়ার পরই আইসিসিকে একটি চিঠি দেয় বিসিবি। প্রাথমিকভাবে এই চিঠিতে আইসিসি সাড়া দিয়েছে। তিনি জানান, ম্যাচটির প্রতিটি বল আইসিসি বিশ্লেষণ করে দেখবে বলে আশ্বাস দেন রিচার্ডসন। বিশ্লেষণের ফল বিসিবিকে জানানো হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি। তিনি বলেন, ওই ম্যাচের আম্পায়ারিং নিয়েই শুধু প্রশ্ন তুলেছে বিসিবি, প্রতিপক্ষ ভারতকে নিয়ে নয়।

প্রসঙ্গত এবারের বিশ্বকাপে ১৯ মার্চ মেলবোর্ন ক্রিকেট গ্রাউন্ডে সেই ম্যাচে ভারতের কাছে বাংলাদেশ ১০৯ রানে হারে। ম্যাচটিতে আম্পায়ারদের কিছু সিদ্ধান্ত নিয়ে বিতর্ক ওঠে। ৪০তম ওভারে রুবেল হোসেনের একটি ফুলটস বলে ‘নো’ ডাকা নিয়ে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

বাস্তব রূপ পেল ২৫০ শয্যার ফেনী সদর হাসপাতালটি

Details
স্বাস্থ্য ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর ২৫০ শয্যার ফেনী সদর হাসপাতালটি বাস্তবে রূপ পেল। হাসপাতাল উদ্বোধনের পর থেকে ১০০ শয্যায় কার্যক্রম চলছিল। সর্বশেষ সোমবার ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারীর ১৫০ শয্যা বিশিষ্ট নব নির্মিত ভবনের উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে পরিণত হলো ফেনী সদর হাসপাতাল।
২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর উক্ত ভবনের কাজ শুরু হয় বলে জেলা গণপূর্ত বিভাগ সূত্রে জানা গেছে। দীর্ঘ ৭ বছর ধরে নির্মাণ কাজ শেষে অত্যাধুনিক এ ভবনের কার্যক্রম শুরু হয়। এ উপলক্ষে আয়োজীত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফেনী-২ আসনের সাংসদ নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, ২৫০ শয্যার হাসপাতাল উদ্বোধনের পর মেডিকেল কলেজ হতে আর কোন বাধা নেই। শুধু মাত্র হাসপাতালটিকে ২৫০ শয্যায় পরিণত করার জন্য এতদিন প্রধানমন্ত্রীর কাছে বিষয়টি জোরালো ভাবে উপস্থাপন করা হয়নি। তিনি অতিদ্রুত ফেনী সদর হাসপাতালকে মেডিকেল কলেজে পরিণত করার জন্য বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করবেন বলে জানান। 

এমপি বলেন,অতীতে অপরাজনীতির কারণে ফেনীর উন্নয়ন হয়নি। খালেদা জিয়া বার বারের নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী হয়েও নিজ এলাকা ফেনীর কোন উন্নয়ন করেননি। কিন্তু আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর ফেনীর সর্বত্র উন্নয়নের জোয়ার বইছে। তিনি বলেন, ফেনী শহরের মহিপালে ইতোমধ্যে ২৩০ কোটি টাকা ব্যায়ে ফ্লাইওভার নির্মাণ অনুমোদন হয়েছে। রেল গেইট এলাকায় সদর হাসপাতালে যাতায়াতে সুবিধার জন্য যানজট এড়াতে ওভারপাস নির্মাণ অনুমোদন হয়েছে।

Read more: বাস্তব রূপ পেল ২৫০ শয্যার ফেনী সদর হাসপাতালটি

নতুন ব্যাংকগুলোকে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে: গভর্নর

Details

বাণিজ্য ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: নতুন অনুমোদন পাওয়া ব্যাংকগুলোকে আগ্রাসী ব্যাংকিং না করার পরামর্শ দিয়ে গভর্নর ড. আতিউর রহমান বলেছেন, ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনায় পুরাতন ব্যাংকগুলোর তুলনায় নতুন ব্যাংকগুলোকে  সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

Risultati immagini per গভর্নর

শুধু পরিধি বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ না করে ভালো বিনিয়োগের মাধ্যমে কিভাবে ভালো ব্যবসা করা যায় সে দিকে নজর দিতে হবে। রবিবার কেন্দ্রিয় ব্যাংকের সভাকক্ষে নতুন অনুমোদন পাওয়া ৯ ব্যাংকের সাথে পৃথক পৃথক বৈঠকে তিনি এ সব কথা বলেন। এসব বৈঠকে গভর্নর সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠকে অফ-সাইট সুপারভিশন বিভাগের পক্ষ থেকে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার এন্ড কমার্স, মেঘনা, মিডল্যান্ড, মধুমতি, ফারমার্স ও ইউনিয়ন ব্যাংকের ডিসেম্বর ভিত্তিক শাখা খোলা, ঋণ, আমানত, লোকবল, বৈদেশিক বাণিজ্যসহ সার্বিক সূচকের ওপর একটি প্রেজেনটেশন দেয়া হয়। এ সময় ব্যাংকের এমডিরা ছাড়াও বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর এস কে সুর চৌধুরী, নির্বাহী পরিচালক এসএম মনিরুজ্জামান, নওশাদ আলী চৌধুরী ও সাইফুল ইসলামসহ অফসাইট সুপারভিশন এবং ব্যাংক পরিদর্শন সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলোর মহাব্যবস্থাপকরা উপস্থিত ছিলেন।

গভর্নর বলেন, ‘ভালো ব্যবসার জন্য শাখা খোলা, লোকবল নিয়োগ, আমানত সংগ্রহ, ঋণ বিতরণসহ সব ক্ষেত্রে বেশি তড়িঘড়ি করা ঠিক হবে না। তাতে ব্যাংকগুলো সমস্যায় পড়তে পারে। ছোট বড় যে কোনো ক্ষতি পোষানো নতুন ব্যাংকের জন্য দূরুহ। আর নতুন কোনো একটি ব্যাংকের বড় ধরনের ব্যর্থতা দেখা দিলে পুরো ব্যাংক খাত তাতে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। 

বৈঠক শেষে মেঘনা ব্যাংকের এমডি মোহাম্মদ নুরুল আমিন সাংবাদিকদের বলেন, আগ্রাসী ব্যাংকিং না করতে ব্যাংকগুলোকে বলা হয়েছে। একই সঙ্গে আর্থিক সূচকগুলোর প্রতি নজর দিতে বলা হয়েছে। এছাড়া যেসব ব্যাংকের আর্থিক পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সন্তুষ্ট নয়, তাদের সঙ্গে আলাদাভাবে বৈঠক হবে।

এস কে সুর চৌধুরী বলেন, নতুন হওয়ায় এসব ব্যাংকের কোনো খেলাপি ঋণ নেই। তবে বর্তমানে বিতরণ করা ঋণই একদিন খেলাপিতে পরিণত হতে পারে। সামনের দিনে খেলাপি ঋণ নিয়šúণে রাখতে এখনই প্রস্তুতি নিতে হবে। এজন্য ঋণ বিতরণের ক্ষেত্রে ভালো ভাবে যাচাই-বাছাই করতে হবে। কোনো একটি ব্যাংকের ব্যর্থতা মানে নিয়ন্ত্রক সংস্থা হিসেবে কেন্দ্রিয় ব্যাংকের ব্যর্থতা। পুরো ব্যাংক খাতের জন্য যা ক্ষতির কারণ হতে পারে।

‘নতুন চলচ্চিত্র, নতুন নির্মাতা’

Details

বিনোদন ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: এবার বাংলাদেশের চলচ্চিত্র ভুবনে নবীন চলচ্চিত্রকারদের নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য, পূর্ণদৈর্ঘ্য এবং প্রামাণ্য চলচ্চিত্র নিয়ে শুরু হচ্ছে বছরব্যাপী চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতা।

‘নতুন চলচ্চিত্র, নতুন নির্মাতা’

‘নতুন চলচ্চিত্র, নতুন নির্মাতা’ শিরোনামে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী এবং ম্যুভিয়ানা ফিল্ম সোসাইটি যৌথভাবে বছরব্যাপী এ চলচ্চিত্র প্রতিযোগিতার আয়োজন করছে। এপ্রিল ২০১৫ থেকে এপ্রিল ২০১৬ পর্যন্ত বছরব্যাপী এ উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান এ এপ্রিলের শেষ সপ্তাহে অনুষ্ঠিত হবে। যে কোনো বয়সের চলচ্চিত্র নির্মাতা যে কোনো ফর্ম্যাটে নির্মিত চলচ্চিত্র নিয়ে এ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। উৎসবে স্বল্পদৈর্ঘ্য ও পূর্ণদৈর্ঘ্য, কাহিনী ও প্রামাণ্য, নিরীক্ষা ও এনিমেটেড সব ধরনের চলচ্চিত্রের জন্য দ্বার উন্মুক্ত থাকবে। একজন নির্মাতা একাধিক চলচ্চিত্র এ কর্মসূচিতে জমা দিতে পারবেন। তবে ১ মাসে একজন নির্মাতার একটির বেশি চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হবে না। 

শিল্পকলা একাডেমির জনসংযোগ বিভাগের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, প্রতিমাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে চলচ্চিত্রের দুটি ডিভিডি কপি জমা দিতে হবে। প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে আগ্রহী চলচ্চিত্র নির্মাতাদের প্রয়োজনীয় তথ্য, নিবন্ধন ফরম সংগ্রহ ও জমাদানের জন্য প্রতিদিন বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার ৭০১ নং কক্ষে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে। অনলাইনে নিবন্ধন ফরম পেতে www.moviyanafilmsociety.org ব্রাউজ করতে হবে। তবে স্বহস্তে পূরণ করে ফরম জমা দিতে হবে। এছাড়াও ০১৯৭১ ১০১১০৬, ০১৬৭ ৫৬৪২৭৭৭ ও ০১৯১২ ২৩১৭৮৫ নম্বরগুলোতে ফোন করে এ সংক্রান্ত তথ্য জানা যাবে। 

Read more: ‘নতুন চলচ্চিত্র, নতুন নির্মাতা’

   

ফটো গ্যালারি

10922554_10206323706558413_5759357035097473384_n
10959633_710789042369161_1791996800550130683_n
academics-icon2
   

Chairman: Dr.Farid Uddin Founder Editor: Main Uddin Bhuiyan,House#403,(3rd Floor),Road 29,New DOHS, Mohakhali, Dhaka, Executive Editor: Engineer sm Ibrahim sumon 01672553366,01842553366, Email:nationalnewsbangladesh@gmail.com

   
© ALLROUNDER