Nationalnews.tv  

 

 
   

Facebook LikeBox  

   

বাংলা পত্রিকা  

 

 Advertise

Add

 

 

Walton At Every Home

Advertise

Advertise

 web:www.twoinsoft.com

Order Now:01817711619

websbd.net

   
Today156
Yesterday238
Total110455

Friday, 18 April 2014 18:10

Who Is Online

Guests : 11 guests online Members : No members online
   

প্রচ্ছদ

এবার সোনিয়া-রাহুলকে কেটে ইতালিতে পাঠানোর হুমকি!

Details

এবার সোনিয়া-রাহুলকে কেটে ইতালিতে পাঠানোর হুমকি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীকে ইতালিতে পাঠানোর মতো উস্কানিমূলক মন্তব্য করেছের এক বিজেপি নেতা। ইমরান মাসুদের পর এবার ভোট প্রচারে অশালীন ভাষা প্রয়োগের নয়া নজির স্থাপন করলেন রাজস্থানের এ বিজেপি বিধায়ক। অর্থাৎ ক্ষমতায় এলে সোনিয়া ও রাহুলকে টুকরো টুকরো করে কেটে ইতালিতে ফেরত পাঠানোর হুমকি দিয়েছেন বিজেপির বিধায়ক হীরালাল রেগার। ৩১ মার্চ সোমবার বসুন্ধরা রাজ্য সরকারের বিধায়ক হীরালাল রেগার হুমকি দিয়ে বললেন, বিজেপি ক্ষমতায় এলে সোনিয়া ও রাহুল গান্ধীকে টুকরো টুকরো করে কেটে ইতালিতে ফেরত পাঠিয়ে দেবেন। তিনি আরো বলেন, কংগ্রেসের কোনও নেতারই আর দেশে থাকার অধিকার নেই।

কদিন আগেই বিজেপির প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী নরেন্দ্র মোদি সম্পর্কে উস্কানিমূলক মন্তব্যের জন্য গ্রেফতার হন সাহারানপুরের কংগ্রেস প্রার্থী ইমরান মাসুদ। এক নির্বাচনী জনসভায় মোদিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে মাসুদ হুমকি দেন, মোদিকে কুচি কুচি করে কেটে ফেলা হবে। উত্তরপ্রদেশের সাহারানপুরের একটি নির্বাচনী জনসভায় মাসুদ বলেছিলেন, যদি মোদি উত্তরপ্রদেশকে গুজরাটে পরিণত করার চেষ্টা করেন তাহলে আমরা তাকে টুকরো টুকরো করে কেটে ফেলব। মাসুদ বলেন,আমি যেমন মরতেও ভয় পাই না তেমনই প্রয়োজনে কাউকে মারতেও পিছিয়ে আসব না। মোদির বিরুদ্ধে আমার লড়াই। উনি ভাবছেন উত্তর প্রদেশও গুজরাট হবে। গুজরাটে মাত্র ৪% মুসলিম রয়েছেন। উত্তরপ্রদেশের ৪২% মানুষই মুসলিম।

মায়ের ক্ষমায় বাঁচল ছেলের খুনির প্রাণ

Details

ফাঁসির বেদিতে গিয়ে নিজের ছেলে আবদুল্লাহর হত্যাকারী বেলালকে চড় মারছেন আবদুল্লাহর মা।      ছবি: দ্য গার্ডিয়ান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: চোখ বেঁধে তাঁকে দাঁড় করানো হয়েছে ফাঁসির বেদিতে, গলায় গলানো হয়েছে ফাঁসির দড়ি। ‘মা’ আর সইতে পারলেন না, দ্রুত গিয়ে ‘ছেলেকে’ চড় মেরে ভেঙে পড়লেন কান্নায়, ‘বাবা’ খুলে দিলেন ফাঁসির দড়ি। প্রাণে বেঁচে গেলেন ২৭ বছরের বেলাল। সামনে অপেক্ষমাণ জনতার মধ্যে যেন ছড়িয়ে গেল মায়ের বুকে জমে থাকা বোবাকান্নার ঢেউ। এক মা এভাবেই বাঁচালেন তাঁর নিজের ছেলের খুনিকে। দেশের আইন অনুযায়ী প্রকাশ্যে ফাঁসি কার্যকরের সময় সম্প্রতি বিরল এই ক্ষমাশীলতার ঘটনা ঘটেছে ইরানে। দ্য গার্ডিয়ান এ খবর জানিয়েছে।

সাত বছর আগে ২০ বছর বয়সী বেলাল তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে ছুরির আঘাতে কেড়ে নিয়েছিলেন ১৮ বছর বয়সী আবদুল্লাহ হোসেনজাদেহর প্রাণ। ইরানের মাজানদারান প্রদেশের ছোট্ট শহর রোয়ানে এ ঘটনায় তোলপাড় শুরু হয়। পুলিশের হাতে ধরা পড়েন বেলাল। বিচার শুরু হয় তাঁর। অপরাধ প্রমাণ হওয়ায় ফাঁসির রায় হয় তাঁর। দেশের আইন অনুযায়ী ফাঁসি হবে প্রকাশ্য এবং ফাঁসি কার্যকরের ঘটনায় অংশ নিতে হবে নিহতের পরিবারকেও।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত বেলালকে চোখ বাঁধা অবস্থায় গলায় ফাঁসির দড়ি পরানোর পর কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে আবদুল্লাহ পরিবারের কাউকে গিয়ে তাঁর পায়ের নিচ থেকে চেয়ারটা সরিয়ে দেওয়ার কথা। কিন্তু ঘটনাস্থলে উপস্থিত সাংবাদিকের তোলা ছবি ও বর্ণনায় দেখা যায়, ঠিক এ সময় ফাঁসি-কাষ্ঠের দিকে এগিয়ে যান নিহত আবদুল্লাহর মা। তিনি গিয়ে ছেলের খুনি বেলালকে একটা চড় মেরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। আর পেছনে দাঁড়ানো আবদুল্লাহর বাবা ছেলের খুনির গলা থেকে খুলে নেন ফাঁসির দড়ি। ছেলের খুনিকে ক্ষমা করে নিহত আবদুল্লাহর মা যখন নেমে আসছেন ফাঁসির বেদি থেকে, তখন বেলালের মা এগিয়ে এসে জড়িয়ে ধরলেন তাঁকে। এক মা কাঁদলেন ছেলে হারানোর বেদনায়, আরেক মা কাঁদলেন ছেলের প্রাণ বেঁচে যাওয়ায়। কিন্তু পরস্পরকে জড়িয়ে ধরে এই দুই মায়ের কান্না কি বুঝতে পেরেছে সবাই! একজন মা কোন বোধে প্রাণের কোন তাড়নায় নিজের ছেলের খুনিকেও ক্ষমা করে দিতে পারেন, সেই প্রশ্নের উত্তর না মিললেও দুই মায়ের কান্না একটা ঢেউয়ের মতোই ছড়িয়ে পড়েছিল ফাঁসি দেখতে আসা শত মানুষের মধ্যে।

লক্কড় ঝক্কড় বাস চলাচল ও মনগড়া ভাড়া আদায়ের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা : ওবায়দুল কাদের

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, লক্কড় ঝক্কড় মার্কা বাস, মিনিবাস চলাচল ও মনগড়া ভাড়া আদায় এবং যত্রতত্র গাড়ি থামানোর বিষয়ে পুলিশ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তিনি রোববার সংসদে সরকারি দলের মোয়াজ্জেম হোসেন রতনের এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। মন্ত্রী বলেন, লক্কড় ঝক্কড় মার্কা যানবাহন যাতে ঢাকা শহরে চলাচল করতে না পারে সে ব্যাপারে বিআরটিএ’র ৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ঢাকা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ বাহিনীর সহায়তায় নিয়মিত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা অব্যাহত রয়েছে। তিনি বলেন, সরকার ঢাকা শহরে অতিরিক্ত বাস ভাড়া নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। নির্ধারিত ভাড়ার চার্ট প্রদর্শনের জন্য বাস মালিক সমিতিসমূহকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। বিআরটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটগণ বিষয়টি মনিটরিং করছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাস ভাড়া আদায় নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। আইনগত ব্যবস্থার পাশাপাশি বাস মালিক সমিতির সাথে নিয়মিত বৈঠক করা হচ্ছে। আঞ্চলিক সড়ক পরিবহন কমিটির পাশাপাশি বিষয়টি মনিটরিংয়ের জন্য উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠিত হয়েছে।
তিনি বলেন, সরকার নির্ধারিত ভাড়ার তালিকা কাউন্টারে ও বাসের ভিতরে বাধ্যতামূলক প্রদর্শনে ব্যবস্থা গ্রহণসহ বিবিধ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। সরকারি দলের নুরুন্নবী চৌধুরীর এক প্রশ্নের যোগাযোগমন্ত্রী বলেন, রাজধানীতে যানজট নিরসনকল্পে সওজ অধিদপ্তরের আওতায় মহাখালী রেলক্রসিংয়ে মহাখালী ফ্লাইওভার, বনানী রেলক্রসিংয়ে বনানী ওভারপাস নির্মাণ করা হয়েছে। তাছাড়া জুরাইন রেলক্রসিংয়ে ওভারপাস নির্মাণ পরিকল্পনাধীন আছে।
সরকারি দলের মোরশেদ আলমের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকা শহরের যানজট নিরসনে গঠিত কো-অর্ডিনেশন ও মনিটরিং কমিটির ১৩টি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সর্বশেষ ১৩তম সভায় সুপারিশকৃত স্বল্পমেয়াদী ১৩টি কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। উক্ত স্বল্পমেযাদী ১৩টি সিদ্ধান্তের মধ্যে বাস্তবায়নের কার্যক্রম চলছে।

মানব পাচারকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি বিধানে সরকার অত্যন্ত আন্তরিক : আইনমন্ত্রী

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: মানব পাচার অত্যন্ত গুরুতর অপরাধ উল্লেখ করে আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, এ ধরনের অপরাধে জড়িতদের সরকার কোন ছাড় দেবে না। তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি বিধানে সরকার অত্যন্ত আন্তরিক। তিনি বলেন, এ ধরনের অপরাধীদের বিচারের আওতায় আনা হলে মানব পাচারের মত জঘন্য অপরাধ কমবে। গুরুতর অপরাধের শিকার ব্যক্তিদের পুনর্বাসনেও সরকার প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ নেবে বলে তিনি উল্লেখ করেন আইনমন্ত্রী রোববার রাজধানীর গুলশানে স্পেক্ট্রা কনভেনশন সেন্টারে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) আয়োজিত ‘লিডিং জাজমেন্টস অন হিউম্যান ট্রাফিকিং’ শীর্ষক সঙ্কলনের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে বিচারপতি নাঈমা হায়দার, আইওএম ঢাকা’র চিফ অফ মিশন শরৎ দাস ও প্রোগ্রাম ম্যানেজার ক্রিস্টিনা বারওয়েল বক্তব্য রাখেন। 

বিচারপতি নাঈমা হায়দার সঙ্কলনে প্রকাশিত বিভিন্ন রায়ের উল্লেখযোগ্য দিকগুলো তুলে ধরেন। 
আইনমন্ত্রী বলেন, মানব পাচার প্রতিরোধ, দমন ও এ অপরাধের শিকার ব্যক্তিবর্গের সুরক্ষা ও অধিকার বাস্তবায়ন এবং নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে সরকার ২০১২ সালে মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন প্রণয়ন করেছে। তিনি বলেন, এই আইন প্রণয়নের ফলে মানবপাচারে জড়িতদের শাস্তি প্রদানের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। পতিতাবৃত্তিসহ মানবপাচার প্রতিরোধে এ আইনের যথার্থ প্রয়োগ নিশ্চিত করতে তিনি আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী, আইনজীবী ও বিচারকদের প্রতি আহ্বান জানান।

রেলওয়ের ৪৬৩৫.৫১ একর জমি অবৈধ দখলে রয়েছে : রেলপথ মন্ত্রী

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: রেলপথ মন্ত্রী মোঃ মুজিবুল হক বলেছেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের ৪ হাজার ৬৩৫ একর ৫১ শতাংশ রেলভূমি বিভিন্ন সরকারি, আধা সরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির অবৈধ দখলে রয়েছে তিনি রোববার সংসদে সরকারি দলের ওয়ারেসাত হোসেন বেলালের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, অবৈধ দখলদাররা রেলভূমি দখল রাখার জন্য বিভিন্ন আদালতে অসত্য তথ্য দিয়ে মামলা-মোকদ্দমা করে আদালত থেকে স্থিতাবস্থা বা নিষেধাজ্ঞা বা অন্যরূপ আদেশ অর্জন করছে। ফলে এসব অবৈধ দখলভুক্ত রেলভূমি উদ্ধারের জন্য চলমান মামলা-মোকদ্দমার জবাব প্রদানসহ অন্যান্য আইনী প্রক্রিয়া গ্রহণ চলমান আছে। তিনি বলেন, যথাযথ আইনী প্রক্রিয়া অনুসরণ করে অবৈধ দখলভুক্ত রেলভূমি উচ্ছেদের মাধ্যমে উদ্ধারের সর্বোচ্চ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 

রেলপথ মন্ত্রী সরকারি দলের শওকত হোসেন হীরনের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের সঙ্গে সঙ্গে সেতুর ওপর দিয়ে ট্রেন চলাচল নিশ্চিত করার জন্য ঢাকা-ভাঙ্গা-যশোর রেলপথ নির্মাণের জন্য এডিবি’র অর্থায়নে টেকনিক্যাল এসিসটেন্স ফর সাব-রিজিওনার রেল ট্রান্সপোর্ট প্রজেক্ট প্রিপারেটরী ফ্যাসিলিটি প্রকল্পের মাধ্যমে সম্ভাব্যতা সমীক্ষা কার্যক্রম চলমান আছে। তিনি বলেন, সমীক্ষা প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর ডিপিপি প্রণয়ন ও অর্থায়ন প্রাপ্তি সাপেক্ষে উক্ত প্রকল্পসমূহের নির্মাণ কাজ শুরু করা হবে। তিনি বলেন, অন্যদিকে পদ্মা সেতুর সাথে সংযোগের জন্য পাঁচুরিয়া-ফরিদপুর-ভাঙ্গা রেলপথ পুনর্বাসন ও নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় পুকুরিয়া থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণ কার্যক্রম চলমান আছে।
তিনি বলেন, এছাড়া ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের ডিপিপি প্রণয়ন করে পরিকল্পনা কমিশনে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রকল্পগুলো পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়িত হলো পদ্মা সেতুর ওপর দিয়ে রাজধানী ঢাকা থেকে সরাসরি বরিশাল পর্যন্ত ট্রেন চালু করা সম্ভব হবে।

বিচারপতিদের বেতন বৃদ্ধির বিলের রিপোর্ট চূড়ান্ত

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় এ সুপারিশ করা হয়। সভায় সুপ্রিম কোর্ট জাজেস (রিম্যুনারেশন এন্ড প্রিভিলেজেস) (সংশোধন) বিল-২০১৪-এর রিপোর্ট চূড়ান্ত করা হয়। কমিটির সদস্য আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক, বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মো.তাজুল ইসলাম চৌধুরী, আবদুল মতিন খসরু, সাহারা খাতুন, মো.আব্দুল মজিদ খান, তালুকদার মো. ইউনুছ এবং এডভোকেট মো.জিয়াউল হক মৃধা সভায় উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সুপ্রিম কোর্ট জাজেস (রিম্যুনারেশন এন্ড প্রিভিলেজেস) (সংশোধন) বিল-২০১৪-এর উপর আলোচনা করা হয়। এছাড়া আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রম এবং বিচার বিভাগের সংস্কার বিষয়ে আলোচনা করা হয়। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি এবং আপীল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারকগণের স্ব-স্ব বেতনের ৫০% হারে মাসিক ‘বিশেষ ভাতা’ প্রদান সংক্রান্ত বিলটি পুঙ্খানুপুঙ্খাভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে উত্থাপনের জন্য চূড়ান্ত করা হয়। সভায় আইন ও বিচার বিভাগের সচিব এবং লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিবসহ মন্ত্রণালয় ও সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রয়াস স্কুলের শিক্ষার্থী প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য বেক্সিমকো'র মাইক্রোবাস হস্তান্তর

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: বগুড়ার জাহাঙ্গীরাবাদ সেনানিবাসে অবস্থিত প্রয়াস স্কুলে অধ্যয়নরত প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য বেক্সিমকো'র পক্ষ থেকে দেয়া একটি মাইক্রোবাস হস্তান্তর করা হয়েছে। অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ১১ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও বগুড়া এরিয়ার এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল একেএম আব্দুল্লাহিল বাকী, এনডিইউ, পিএসসি। বেক্সিমকো'র পক্ষে উপস্থিত ছিলেন বেক্সিমকো রিয়েল স্টেট এন্ড ফিশারিজ ট্রেডিং ডিভিশনের সিইও মেজর (অবঃ) পারভেজ হাসান।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্কুলের চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ সাইফুল আলম, এনডবিস্নউসি, পিএসসি, সহকারী চেয়ারম্যান লেঃ কর্ণেল শামিম আহমেদ, সচিব মোঃ রাকিবুজ্জামান এবং পরিচালনা পর্ষদের অন্যান্য সদস্য। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক ফিরোজ আহম্মেদ। অনুষ্ঠানে প্রয়াস স্কুলের ছাত্র-ছাত্রী ও অভিভাবকরাও উপস্থিত ছিলেন। খবর বিজ্ঞপ্তির।

ফেনীতে কাউন্সিলরের অবৈধ স্থাপনা গুড়িয়ে দিলো পৌরসভা

Details

স্টাফ রিপোর্টার,ন্যাশনালনিউজ: ফেনী শহরের রামপুরে অবৈধভাবে জায়গা দখল করে কাউন্সিলরের নবনির্মিত ঘর গুড়িয়ে দিয়েছে পৌরসভা। পৌরসভা সূত্র জানায়, ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো: মানিক অনুমতি ছাড়া পৌরসভার মালিকীয় পাগলা ছরা খাল দখল করে দোকান ঘর নির্মাণ করে। পৌরসভার পক্ষ থেকে বারবার জানানো হলেও তিনি কর্ণপাত করেননি। একপর্যায়ে গতকাল রবিবার সকালে ভারপ্রাপ্ত মেয়র মোসলেহ উদ্দিন হাজারী বাদলের নির্দেশে স্যানেটারী ইন্সপেক্টর কৃষ্ণময় বনিক একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে যায়। এসময় বুলডোজার দিয়ে ঘরটি গুড়িয়ে দেয়া হয়। ঘরের মালিক কাউন্সিলর মো: মানিক ঘটনাস্থলে আসলে তাকে কাগজপত্র নিয়ে ফেনী মডেল থানায় আসতে বলে। কাউন্সিলর মো: মানিকের দাবী, জায়গাটি তার পৈত্রিক সম্পত্তি।
প্রসঙ্গত; এর আগেও তিনি ওই খাল ভরাট করে দোকান ঘর নির্মাণের চেষ্টা করলে পৌরসভার পক্ষ থেকে বাধা দেয়া হয়।

অপরাধের সর্বনিম্ন হার

Details

আন্তর্জাতিক ডেস্ক,ন্যাশনালনিউজ: সিঙ্গাপুরে তিন দশকের মধ্যে অপরাধের সর্বনিম্ন হার ছিল গত বছর। শুক্রবার প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী পুলিশ জানিয়েছে, ২০১৩ সালে প্রতি ১ লাখ লোকের মধ্যে মামলা হয়েছে ৫৪৯টি। ২০১২ সালে এ সংখ্যা ছিল ৫৮৪টি। অপরাধের সংখ্যা চারটি বিভাগে কমেছে। ঘরবাড়িতে ডাকাতি, চুরি, মানুষের অপরাধপ্রবণতাসহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধ কমে গেছে। তবে বাণিজ্যিক অপরাধ এবং হিংস্রতা বৃদ্ধি পেয়েছে। সবচেয়ে প্রতারণা বৃদ্ধি পেয়েছে ই-কমার্সে। ২০১২ সালে যেখানে প্রতারণার মামলা ছিল ২৩৮টি, সেখানে ২০১৩ সালে এ সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০৯টিতে।

অভিযুক্তরা অনেকেই বিভিন্ন পণ্য কেনার জন্য অন লাইনের মাধ্যমে টাকা-পয়সা লেনদেন করে। কিন্তু পরবর্তী সময়ে তাদের টাকা দেয়ার পরও পণ্য সরবরাহ করা হয় না। স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট কম্পিউটার কেনার ক্ষেত্রে এ ধরনের অপরাধ সবচেয়ে বেশি সংঘটিত হয়। ইন্টারনেটসংক্রান্ত অপরাধ সংঘটিত হয়েছে ৮১টি, যেখানে ২০১২ সালে এ সংখ্যা ছিল ৫০টি। সাইবার অপরাধে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের অধিকাংশই মহিলা।

জন্মদিনে এরশাদ আমার হাতে হাত রাখ আবার সুদিন আসবে

Details

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: জন্মদিনে দলের নেতা-কর্মীদের নিজের দিকে ডেকে আবারো সুদিনের আশা দিলেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মাদ এরশাদ। বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলশানে নিজের '৮৫তম' জন্মদিনের অনুষ্ঠানে এরশাদ বলেন, তোমরা আমার হাতে হাত রাখ। আবার সুদিন আসবে। জাতীয় পার্টি আবারো নির্বাচনে জয়ী হবে। 'ইমানুয়েলস কনভেনশন সেন্টারে' এই অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদারসহ উপদেষ্টাম লীর কয়েকজন উপস্থিত থাকলেও রওশন এরশাদকে দেখা যায়নি। বর্তমান সরকারের মন্ত্রিসভায় ঠাঁই পাওয়া আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ও মুজিবুল হক চুন্নু, সংসদে বিরোধী দলের প্রধান হুইপ তাজুল ইসলাম এবং দলের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য কাজী ফিরোজ রশীদও অংশ নেননি এই উদযাপনে।

এরশাদ ২০ মার্চ কেক কেটে নিজের জন্মদিন উদযাপন করলেও জাতীয় পার্টির ওয়েবসাইটে তার জন্মতারিখ উল্লেখ করা হয়েছে ১ ফেব্রুয়ারি ১৯৩০। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে দলের সভাপতিম লীর সদস্য ও চেয়ারম্যানের প্রেসসচিব সুনীল শুভ রায় বলেন, আজই স্যারের আসল জন্মদিন। আর ১ ফেব্রুয়ারি হলো সার্টিফিকেটের জন্ম তারিখ। অনুষ্ঠানে উপস্থিত নেতাকর্মীদের বাহাবা দিয়ে এরশাদ বলেন, আজ সমবেত নেতা-কর্মীদের দেখে প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে, তারা হতাশ নয়। জাপাকে সুসংগঠিত করতে তারা প্রস্তুত। তারা দলকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। জাতীয় পার্টিকে নিজের 'যোগ্য সন্তান' অভিহিত করে অশীতিপর এই নেতা বলেন, মৃত্যুর আগে তিনি দলকে আরো যোগ্য অবস্থায় দেখে যেতে চান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেয়ার আগে জন্মদিনের কেক কাটেন এরশাদ। অন্যদের মধ্যে দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাইদুর রহমান টেপা, যুগ্ম সম্পাদক নুরুল ইসলাম নুরু, যুগ্ম দফতর সম্পাদক আবুল হাসান আহমেদ জুয়েল, মেরিনা রহমান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এর আগে বৃহস্পতিবার প্রথম প্রহরে নিজের বাড়ি প্রেসিডেন্ট পার্কে সহযোগী সংগঠন 'যুব সংহতির' নেতা কর্মীদের নিয়েও এক দফা কেক কাটেন এরশাদ।

অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা

Details
স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

ডেস্ক রিপোর্ট,ন্যাশনালনিউজ: দেশের বিভিন্ন স্থানে নামে-বেনামে ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে ওঠা অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। একই সঙ্গে বৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলোকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতারও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার রাজধানীর নিউরোসায়েন্স হসপিটালের চিকিৎসকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন মন্ত্রী। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মুদির দোকানের মতো গজিয়ে ওঠা অনুমোদনহীন ডায়াগনস্টিক সেন্টারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। বহু বছর আগে থেকে দেশে চিকিৎসার নামে ব্যবসা হচ্ছে। এটা আর করতে দেওয়া হবে না।’

অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের মালিকদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, ‘পৃথিবীতে তো আরো অনেক ব্যবসা আছে। তারা অন্য ব্যবসা করলেই পারতেন।’ সভায় চিকিৎসকদের দুর্নীতির বিষয়েও কথা বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের এক নারী চিকিৎসক হাজিরা খাতায় সাত মাসের অগ্রিম স্বাক্ষর করে রেখেছিলেন। সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীও এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেননি। আমার কাছে ফাইল আসামাত্র আমি তাকে বরখাস্ত করেছি। কোনো তদবির শুনিনি।’ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম আরো বলেন, ‘চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে আমাকে কেন ব্যবস্থা নিতে হবে? তারা নিজেরাই তো ব্যবস্থা নিতে পারেন।’ 

   

ফটো গ্যালারি

1
1185563_676560745742729_1914898164_n
1424549_481812965266388_1881555782_n
392842_509762219083082_75092400_n
vote-0020140331162447
   
   
© ALLROUNDER